ঈদের আগে দাবি না মানলে ঈদের পর কঠোর কর্মসূচি : বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদ

স্পেশাল করেসপনডেন্ট

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বৃদ্ধির দাবিতে শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীরা ধাবাবাহিকভাবে আন্দোলন করে আসলেও বয়স বাড়ানোর আপতত কোনো পরিকল্পনা সরকারের নেই।

জনপ্রশাসন মন্ত্রী বলেনছেন, বর্তমানে চাকরি থেকে অবসরগ্রহণের বয়সসীমা ৫৭ বছর থেকে ৫৯ বছরে উন্নীত হওয়ায় শূন্য পদের সংখ্যা স্বাভাবিকভাবেই কমে গেছে। এই প্রেক্ষাপটে চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ালে বিভিন্ন পদের বিপরীতে চাকরিপ্রার্থীদের সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাবে। এ কারণে নিয়োগের ক্ষেত্রে আরও বেশি প্রতিযোগিতার সৃষ্টি হবে। এর ফলে যাঁদের বয়স বর্তমানে ৩০ বছরের বেশি, তাঁরা চাকরিতে আবেদন করার সুযোগ পেলেও অনূর্ধ্ব ৩০ বছরের প্রার্থীদের মধ্যে হতাশা সৃষ্টি হতে পারে। এই পরিস্থিতিতে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩০ থেকে বাড়িয়ে ৩৫ বছর করার কোনো উদ্যোগ আপাতত সরকারের নেই।’

সরকারকে দোষারোপ করার সুযোগ নেইঃ জয়

ঈদের পর তরুণদের জন্য চমক নি‌য়ে আস‌ছেন সো‌হেল তাজ

ঈদ শপিং ও দুই বন্ধুর গল্প

এদিকে রোজার ঈদের আগেই সরকারি চাকুরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ করার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদ। দাবি না মানলে ঈদের পর কঠোর কর্মসূচি দেওয়ার ঘোষণা দেন তারা। গত শনিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে, ঈদের আগে দাবি না মানলে ঈদের পরে তিন দিনের কর্মসূচির ঘোষণা দেন । ২৯ জুন ‘৩০ এর শিকল নিয়ে অবস্থান কর্মসূচি’, ৩০ জুন রক্তদান কর্মসূচি ও ৭ জুলাই সকাল থেকে শাহবাগে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচির ঘোষণা দেওয়া হয়।

লিখিত বক্তব্যে তারা বলেন, ৬ জুন জাতীয় সংসদে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা নিয়ে ছাত্রছাত্রীদের দাবির বিষয়টি নাকচ করে দেন জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। এসময় তিনি বর্তমানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কোনো সেশনজট নেই বলে মন্তব্য করেছেন। এই কথাটি মনোগত কল্পনা ও আবেগ নির্ভর।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ইমতিয়াজ হোসেন, সিনিয়র সহ সভাপতি আমিনুল ইসলাম, ছাত্র পরিষদের সভাপতি রাজু ও সাধারণ সম্পাদক সেলিম, ইডেন কলেজের ছাত্রী সুরাইয়া ইয়াসমিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বানিমি/আজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *