৪৬.৫ শতাংশ ভোট কেন্দ্রে অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে : ইডব্লিউজি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন (গসিক) নির্বাচনে ৪৬ দশমিক ৫ শতাংশ ভোটকেন্দ্রে অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছে নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থা ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপ (ইডব্লিউজি)।

৪২৫ টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ইডব্লিউজি পুরো ৫৭ টি ওয়ার্ডের ১২৯ টি ভোট কেন্দ্র পর্যবেক্ষণ করেছে। এর মধ্যে সংস্থাটি ১৫৯ টি অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পর্যবেক্ষণের তথ্য তুলে ধরে এসব অভিযোগ করা হয়।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন (গসিক) নির্বাচন নিয়ে প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংস্থাটির পরিচালক ড. মো. আব্দুল আলীম।

তিনি বলেন, ‘ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপ (ইডব্লিউজি)’র যেসব ভোটকেন্দ্র পর্যবেক্ষণ করেছে সেগুলোর ৪৬ দশমিক ৫ শতাংশ কেন্দ্রে ১৫৯ টি নির্বাচনী অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে। পর্যবেক্ষিত এসব অনিয়মের বেশিরভাগই দুপুরের পর সংঘটিত হয়েছে। এসব অনিয়মের মধ্যে রয়েছে জোর করে ব্যালট পেপারে সিল মারা। ভোট কেন্দ্রের ৪০০ গজ ব্যাসার্ধের ভেতরে নির্বাচনী প্রচারণা চালানো এবং ভোট কেন্দ্রের ভেতরে অন অনুমোদিত ব্যক্তির অবস্থান।’

গাজীপুরে বিএনপি নেতাদের ধরপাকর চালাচ্ছে পুলিশ/ রিজভী

পুলিশ নিজেরাই নৌকায় সীল মারছে : রিজভী

সহিংসতা ও নিহত হওয়ার ঘটনা ঘ‌টে নি, নির্বাচন সুষ্ঠু হ‌য়ে‌ছে :কা‌দের

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ‘অনিয়মের কারণে পর্যবেক্ষণকৃত ১২ টি ভোট কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়, এর মধ্যে ৯ টি ভোট কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ পুনরায় চালু হয়।’

সংস্থাটির পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, ‘ভোট কেন্দ্রে ভোটারকে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি এমন ঘটনা ৬ টি। ভোটকক্ষে ভোটার প্রবেশের পর আঙ্গুলের কালির ছাপ দিয়ে বলা বলা হয়েছে আপনার ভোট দেয়া হয়ে গেছে এমন ঘটনা ৩ টি। কেন্দ্রে পোলিং এজেন্টদের প্রবেশ করতে না দেয়ার ঘটনা ৩। আর ৬ টি কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়। ভোট কেন্দ্রের ৪০০ গজের মধ্যে প্রচারণা চালানো হয়েছে এমন ঘটনা ২৮ টি। ভোট কেন্দ্রে অন অনুমোদিত ব্যক্তির উপস্থিতি দেখা গেছে এমন ঘটনা ৩০। ভোট কেন্দ্রের ভেতরে সহিংসতার ঘটনা ৮। ভোট কেন্দ্রের বাইরে সহিংসতা ঘটেছে ৯ টি। অবৈধভাবে ব্যালটে সিল মারার ঘটনা ২১ টি।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বিশেষ প্রার্থীর পক্ষে অবস্থান নিয়েছে এমন ঘটনা ৫। ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যেতে প্রার্থী কর্তৃক যানবাহন সরবরাহ করার ঘটনা ২৪ ও অন্যান্য অনিয়মের ঘটনা ১৬ টি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন সংস্থাটির সদস্য আব্দুল আওয়াল, হারুনুর রশীদ ও প্রফেসর নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহ।

লিখিত বক্তব্য পাঠশেষে সংস্থাটির সদস্যরা সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

নির্বাচন কতোটা সুষ্ঠু হয়েছে সাংবাদিকদের এমন এক প্রশ্নের উত্তরে পরিচালক আব্দুল আলীম বলেন, ‘এটা কি সুস্পষ্ট নয়? ৪৬.৫ শতাংশ ভোট কেন্দ্রে অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে, এর মধ্যেই তো অনেক উত্তর আছে।’ অন্য এক প্রশ্নের উত্তরে সংস্থাটির সদস্য হারুনুর রশীদ বলেন, ‘শত চেষ্টা করেও রংপুরের মতো নির্বাচন গাজীপুরে করা সম্ভব নয়।’

বানিমি/আজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *